উজিরপুরে ইউপি চেয়ারম্যান ভ্রাতার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ

অবশ্যই পরুন

বরিশালের উজিরপুরের ইচলাদীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের ছোট ভাইয়ের বিরুদ্ধে এক সৌদি প্রবাসীর বৃদ্ধা মা’য়ের নিকট চাঁদা দাবী করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। একই সাথে ওই প্রবাসীর বাড়ি-ঘরে অগ্নিসংযোগ করে পরিবারের সবাইকে পুড়িয়ে হত্যার হুমকিও দেওয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় বুধবার রাতে ভুক্তভোগী ওই প্রবাসীর বৃদ্ধা মা হাচেন ভানু বাদী হয়ে স্থানীয় ওই ইউপি চেয়ারম্যানের ভাইসহ ৩ জনকে আসামী করে উজিরপুর মডেল থানার একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার শিকারপুর ইউনিয়নের ইচলাদী গ্রামের বাসিন্দা সৌদি আরব প্রাবাসী মো: আজিজ শেখ গত বছরের ১মার্চ একই এলাকার বাসিন্দা আবু তালেব ফকিরের নিকট থেকে ১৬ শতাংশ জমি ক্রয় করেন। এক বছর ধরে সেই জমি তিনি ভোগ দখল করে আসছিলেন।

সম্প্রতি আজিজ তার ওই জমিতে একটি পুকুর খনন করেন এবং গত কয়েকদিন ধরে অন্যত্র থেকে মাটি সেই পুকুরের পার বাধাচ্ছিলেন। হঠাৎ গত বুধবার সকাল ১০টার দিকে সেই কাজে বাধা প্রদান করে জমিদাতা আবু তালেব ফকির, তার ছেলে মো: মিলন ফকির ও স্থানীয় চেয়ারম্যানের ছোট ভাই জাহিদুল হাওলাদার জাহিদসহ বেশ কয়েকজন। এ সময় তারা প্রবাসী আজিজের বৃদ্ধা মা হাচেন ভানু ও তাদের কাজে আসা শ্রমিকদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে বসতঘরে আগুন দিয়ে পরিবারের সবাইকে পুড়িয়ে মারা হুমকি দেয়। অভিযোগকারী বৃদ্ধা হাচেন ভানু ক্ষোভ প্রকার করে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের ক্রয়কৃত জমিতে আমরা পুকুর খনন করে পার বাধাচ্ছিলাম কিন্তু হঠাৎ করেই এসব সন্ত্রাসীরা আমাদের কাজে বাঁধা দেয়। হুমকি-ধামকি দিয়ে বলে আমার প্রবাসী ছেলে বাড়িতে আসলে তাকে খুন করবে।

এছাড়া পুকুরের পার বাঁধতে শিকারপুর ইউপি চেয়ারম্যান সরোয়ার হাওলাদারের ভাই জাহিদুল আমার কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করেছে। টাকা না দিলে কোনো ভাবেই আমাদের পুকুরের পার বাঁধতে দিবে না। আমি চেয়ারম্যান সরোয়ারের সন্ত্রাসী ভাই জাহিদুলসহ সবাইকে আসামী করে থানায় অভিযোগ করেছি।’ উজিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিশির কুমার পাল অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে জানান, ‘অভিযোগ পেয়ে আমি নিজেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’ উল্লেখ্য, এ ঘটনার পরে ওই এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শিকারপুর ইউপি চেয়ারম্যান সরোয়ার হাওলাদারের ছোট ভাই জাহিদুল ইসলাম এর পূর্বেও একাধিক সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ঘটিয়েছে। বেশ কয়েকজনকে মারধরও করেছে। বড় ভাই ইউপি চেয়ারম্যান, সেই ক্ষমতার দাপটে জাহিদুল ধারাবাহিকভাবে এ ধরনের কর্মকান্ড করে আসছে। তবে স্থানীয়রা ভয়ে তাদের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে চাননা।

সম্পর্কিত সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বরিশালে গণধর্ষণ, প্রধান আসামি সাকিব গাজীপুরে গ্রেপ্তার

বরিশাল নগরীতে তরুণীকে ধর্ষণ ও আত্মহত্যায় প্ররোচনার প্রধান আসামি মো. সাকিবকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব-৮)। গতকাল...