বরিশালে করোনা মোকাবেলায় মানবতার ফেরিওয়ালা উপজেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু

অবশ্যই পরুন

মহামারী করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এর সংক্রমণ এড়াতে গত ২৬ মার্চ থেকে সারাদেশে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করায় জনজীবন বিপর্যস্ত। দেশের অধিকাংশ জেলা-উপজেলা এখন লকডাউনের আওতায়। নিম্ন আয়ের মানুষেরা রয়েছেন দুবেলা-দুমুঠো সাহায্যের অপেক্ষায়।

সমাজের কম সৌভাগ্যবান নাগরিকগণ জনপ্রতিনিধিদের সাহায্যের অপেক্ষায় আশা করে আছেন। প্রায় সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ সংক্রমণ ঝুঁকি এড়াতে এবং আত্মরক্ষার্থে নিজ ঘরে অবস্থান করছেন।বেশির ভাগ জনপ্রতিনিধি এবং নেতাকর্মীরা যখন হোম কোরাইন্টাইনে নিজেদের আত্মরক্ষায় ব্যস্ত।

অনেক জনপ্রতিনিধির আনাগোনা দেখা গেলেও তারা খোঁজ রাখছেন না অসহায় জনগনের। অনেকেতো জনগনের জন্য দেয়া সরকারি ত্রাণ লুটপাটেও কুন্ঠা বোধ করছেন না। যা সম্পর্কে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সুবাধে আমরা সবাই অবগত।এতসব হতাশার মাঝেও জনগনের আশার আলো হয়ে পাশে আছেন বরিশাল সদর উপজেলা চেয়ারম্যান, বরিশাল চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি ও সুন্দরবন নেভিগেশন গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সাইদুর রহমান রিন্টু।

এই প্রতিকূল অবস্থাতেও থেমে নেই তিনি, জনগনের দ্বারে দ্বারে ছুটছেন সকাল থেকে রাত অবধি।কেবলমাত্র সরকারি ত্রাণ সাহায্যের অপেক্ষায় না থেকে, ব্যক্তিগত ও পারিবারিকভাবে আর্থিক সহযোগিতায় বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী ও নগদ টাকা ত্রাণ বা সহযোগিতা হিসেবে সদর উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের মানুষকে গ্রামে গ্রামে পৌঁছে দিয়েছেন সাইদুর রহমান রিন্টু।

এ পর্যন্ত তিনি সরকারি ত্রান-সাহায্য তহবিল থেকে প্রায় ৬ হাজার এবং নিজ অর্থায়নে ৪ হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু বলেন, এপর্যন্ত সরকারি সব রকমের ত্রাণ সহায়তা স্থানীয় প্রতিনিধি ও বিশিষ্ট নাগরিকদের সাথে নিয়ে সঠিকভাবে বন্টনের চেষ্টা করেছি।

অন্যান্য সময়ে সরকারি সাহায্যের জন্য শুধুমাত্র অতি দরিদ্র জনগোষ্ঠিকে চিহ্নিত করা হতো। বর্তমান পরিস্থিতে গাড়িচালক, শ্রমিক-দিনমজুর, ইমাম-মুয়াজ্জিন, প্রাইভেট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও নানা শ্রেণি-পেশার মানুষসহ বিশেষ করে যারা মধ্যবিত্ত শ্রেণি সংকটে রয়েছেন। আমরা দরিদ্র জনগোষ্ঠির পাশাপাশি তাদের কথাও মাথায় রেখে ত্রাণ সহায়তা দেয়ার চেষ্টা করছি।

তিনি আরও জানান, করোনা ভাইরাস মোকাবেলা ও সাধারণ মানুষের খাদ্য চাহিদা পুরনে এই মহামারী বিপর্যয় উত্তরনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দেশের সব আবাদযোগ্য জমি যাতে কৃষি চাষ ও সবজির আবাদ করা হয় সেই লক্ষ্যে বরিশাল সদর উপজেলা পরিষদের ১০টি ইউনিয়নের প্রায় ৬০০ জন হতদরিদ্র সাধারণ কৃষক-কৃষাণিকে শাক-সব্জির বীজ বিতরণ করেছি যা পরবর্তী খাদ্য ঘাটতি মোকাবেলায় অবদান রাখবে আশা করি।শায়েস্তাবাদ ইউনিয়নের বিশিষ্ট সমাজসেবক বীর মুক্তিযোদ্ধা আশ্রাফ আলী মিয়া বলেন, আমাদের চেয়ারম্যান দিনরাত জনগনের পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছেন। দল-মত, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলের জন্য সহযোগিতা করে যাচ্ছেন।

বর্তমান সময়ে পত্রিকার মাধ্যমে প্রায়ই দেখা যায় বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিদের সরকারি ত্রান-সাহায্য আত্বসাতের ঘটনা। সেই সকল পরিষদের সাথে তুলনা করলে বলতে হয় আমরা অনেক ভালো আছি। যেকোনো সমস্যায় উনাকে কাছে পাচ্ছি।সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার জন্যও তিনি উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন।

জনগনকে সচেতন করার লক্ষ্যে নিয়মিত মাইকিং, ফেসবুকিং ও উঠোন বৈঠক করে প্রচারণা করে যাচ্ছেন।প্রাণঘাতী করোনা তাকে দমাতে পারেনি বরং তার কর্মব্যস্ততা বাড়িয়েছে। করোনায় নিজের প্রাণনাশের আতঙ্ক থাকলেও জনগনের সুরক্ষায় মানবতার ফেরিওয়ালা এই চেয়ারম্যান ছুটে চলেছেন বরিশাল সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের আনাচে-কানাচে।

তাইতো সদর উপজেলার মাটি ও মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন সদা হাস্যজ্বল সাদা মনের মানুষ আলহাজ্ব সাইদুর রহমান রিন্টু।উল্লেখ্য,সাইদুর রহমান রিন্টু ২০১৯ সালে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বরিশাল সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।এ নিয়ে দুই বারের সফল চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।এছাড়াও তিনি এবারের সংসদ নির্বাচনে বরিশাল সদর-৫ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন।

সম্পর্কিত সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

ডাসারে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু

মাদারীপুরের ডাসার উপজেলার কাজীবাকাই দক্ষিণ মাইজপাড়া পানিতে পড়ে দুই চাচাতো বোনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১ টার দিকে উপজেলার...