বরিশালে মায়ের সাথে অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে কিশোরের আত্মহত্যা

অবশ্যই পরুন

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার পল্লীতে এক কিশোর মায়ের সাথে অভিমান গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। স্থানীয় চরহোগলা নামক ওই পল্লীর ১৩ বছর বয়সি জুনায়েদ রহমান নাজিম নিজঘরে ফ্যানের সাথে গামছা পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেয়। স্বজনেরা দেখতে পেয়ে তাকে দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার আগেই মৃত্যু ঘটে। এই বিয়োগান্তের ঘটনাটি বুধবার দুপুরের।

 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়- স্থানীয় একটি স্কুলের ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী জুনায়েদ রহমান নাজিমকে পারিবারিক বিষয়াদী নিয়ে বুধবার বেলা ১২টার দিকে মা ও বোন রাগারাগি করেন। এতে সে অভিমান করে ঘরের দরজা-জানালা আটকে অভ্যন্তরে ফ্যানের সাথে গামছা পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেয়। স্বজনেরা ডাকাডাকি করার পরেও সে সাড়া শব্দ না দেওয়ায় দরজা ভেঙে তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়।

 

কিশোরের বাবা মোস্তাফিজুর রহমান মানিক জানান, ছেলে উদ্ধার করে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। কিন্তু সেখানে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক পরীক্ষা করে জানান অনেক আগেই মারা গেছে।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে মেহেন্দিগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবিদুর রহমান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল ও হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। পরিবার মরদেহ ময়নাতদন্ত করতে না চাওয়ায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

ডাসারে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু

মাদারীপুরের ডাসার উপজেলার কাজীবাকাই দক্ষিণ মাইজপাড়া পানিতে পড়ে দুই চাচাতো বোনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১ টার দিকে উপজেলার...