বরিশালে শ্রমিকদের তহবিলের অর্ধলক্ষ টাকা নিয়ে উধাও সভাপতি হুমায়ন!

অবশ্যই পরুন

বরিশাল নথুল্লাবাদ বাস-টার্মিনাল এলাকায় মটর সাইকেল চালক শ্রমিক ইউনিট’র সভাপতির বিরুদ্ধে শ্রমিকদের উন্নয়ন তহবিলের প্রায় অর্ধলক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে।উন্নয়ন তহবিলের টাকা আত্মসাতের ঘটনায় নথুল্লাবাদ বাস-টার্মিনাল শ্রমিকলীগ নেতা কামাল হোসেন লিটন মোল্লার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দ্বায়ের করেছে সংগঠনের সদস্যরা।লিখিত অভিযোগ ও সঙ্গঠনের সদস্য সূত্রে জানা যায়,মাস কয়েক পূর্বে মটর সাইকেল শ্রমিক ইউনিটের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠন করা হয়।এতে সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হন কামাল হোসেন গাজীর পূত্র মোঃ হুমায়ন কবির গাজী এবং সম্পাদক নির্বাচিত হন মান্নান হাওলাদারের পূত্র নান্টু।কমিটি নির্বাচনের পর থেকেই ওই মাস থেকেই সে নথুল্লাবাদ বাস-টার্মিনাল এলাকার সকল ভাড়ায় চালিত মটর সাইকেল চালকদের থেকে উন্নয়ন তহবিল ও নিবন্ধন ফি বাবদ টাকা আদায় করা শুরু করেন।

 

সূত্রে আরও জানা যায়,মটর সাইকেল শ্রমিক ইউনিটের বর্তমান সদস্যের সংখ্যা ৪৮ জন। এ সকল সদস্যদের থেকে প্রতিদিন যে চাঁদা আদায় করা হয়েছে তা বর্তমানে প্রায় অর্ধলক্ষ টাকার উপরে হবে।এদিকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের শুরু থেকে গনপরিবহণ বন্ধ থাকায় মটর সাইকেল চালকদের আয়-ইনকাম একটু ভালো হওয়ায় সঙ্গগঠেনের সভাপতি প্রতিদিন ১০০টাকা চাঁদা ধার্য করে দেন। এমনকি দূর দূরান্ত থেকে আসা মটর সাইকেল চালক যদি যাত্রী নিয়ে নথুল্লাবাদ রুট থেকে যাতায়াত করে তাহলে সেই চালকদের গুনতে হয় মোটা অঙ্কের চাঁদা।

 

বিশ্বস্ত এক সূত্র জানায়,মটর সাইকেল শ্রমিক ইউনিটের বর্তমান সভাপতি হুমায়ন কবির গাজীর বিরুদ্ধে ২০১৬ সালে ফরিদপুর থানায় একটি ইয়াবা মামলা হয় যা এখনো চলমান রয়েছে।এছাড়াও তার বিরুদ্ধে দূরদূরান্ত থেকে মহিলা যাত্রীদের হয়রানি এবং টাকা আত্বসাতের অভিযোগ রয়েছে।এ ব্যাপারে মটর সাইকেল শ্রমিক ইউনিটের সদস্য মাহাবুব জানান,সভাপতি হুমায়ন বিভিন্ন সময়ে মহিলা যাত্রীদের বিভিন্ন অজুহাতে তার গাড়িতে যাত্রী হিসেবে নিয়ে কৌশল অবলম্বন করে মহিলা যাত্রীদের সাথে প্রেমের সম্পর্ক তৈরী করে।তার ফাঁদে যেই যাত্রীরা পরে যায় সে তাদের বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সর্বস্ব কেড়ে নেয়। এ পর্যন্ত হুমায়ন প্রায় চার থেকে পাঁচজন মহিলা যাত্রীর সাথে প্রেমের ছলে বিয়ে করার পরে নগদ টাকা পয়সা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ রয়েছে।

দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনের পরে মটর সাইকেল শ্রমিক ইউনিটের বর্তমান সভাপতি হুমায়ন কবির গাজী ও সাধারন সম্পাদক নান্টু সংগঠনে নতুন সদস্য গ্রহণেরক্ষেত্রে প্রতি সদস্যদের কাছথেকে ১ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ৩হাজার টাকা পর্যন্ত উত্তলন করেন।এছাড়াও সভাপতি হুমায়ন বিভিন্ন সময়ে সদস্যদের থেকে ধার বাবদ ব্যাপক টাকা নিয়েছে বলে জানা যায়।এ বিষয়ে মটর সাইকেল শ্রমিক ইউনিটের সদস্য সাইদুল ইসলাম সিরাজ জানান,দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনের পরে বর্তমান সভাপতি হুমায়ন কমিটির তহবিলের টাকা ছাড়াও আমাদের সদস্যদের থেকে বিভিন্ন সময়ে যে পরিমান টাকা ধার বাবদ নিয়েছে তাতে প্রায় দুই থেকে তিন লাখ টাকা্র উপরে হবে হয়তো।

সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি সুমন হাওলাদার জানান,গত চার মাস পূর্বে মটর সাইকেল শ্রমিক ইউনিটের বর্তমান কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন সংগঠনের উপদেষ্টা মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন।কমিটি বিলুপ্ত ঘোষনা করার পরেও স্থানীয় একটি মহলের সহযোগিতায় হুমায়ন তার অপকর্ম চালিয়ে গেছেন। সুমন আরো জানান,প্রতি মাসে আমাদের সদস্যদের চাঁদা এবং নতুন সদস্য ভর্তি বাবদ যে টাকা আদায় করা হয় সেইটা প্রতি মাসের হিসেব প্রতি মাসে করার কথা কিন্তু বর্তমান সভাপতি হুমায়ন সদস্যদের উন্নয়ন তহবিলের জমানো টাকার হিসেব চাইতে গেলে দেব-দিচ্ছি বলে টালবাহানা করতে থাকে।

এক পর্যায়ে সংগঠনের সদস্যরা কয়েকদিন আগে নথুল্লাবাদ কেন্দ্রীয় বাসটার্মিনাল শ্রমীকলীগ নেতা কামাল হোসেন লিটন মোল্লা ভাইয়ের কাছে অভিযোগ করলেতিনি বিষয়টি আমলে নিয়ে এবং সত্যতা নিশ্চিত করে বিলুপ্ত কমিটির সকল সদস্যদের কর্মকান্ড থেকে বিরত থাকার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন।

শ্রমীকলীগ নেতা কামাল হোসেন লিটন মোল্লা বলেন,মটর সাইকেল শ্রমিক ইউনিটের সদস্যদের তহবিলের টাকা আত্মসাতের একটি অভিযোগ নিয়ে কমিটির সদস্যরা আমার কাছে এসেছিলো,আমি অভিযুক্ত হুমায়নকে তহবিলের টাকা ফেরত দিতে বলেছি এবং সে যাতে করে পরবর্তীতে এরকম কাজ আর না করে সে বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত হুমায়ন কবিররের বক্তব্যের জন্য তার ব্যাবহৃত (0162——–145)নাম্বারে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি তার মুঠোফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

সম্পর্কিত সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

পিরোজপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে কু*পি*য়ে যুবকের পা বি*চ্ছিন্ন

পিরোজপুর সদর উপজেলার মুলগ্রাম এলাকায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গোলাম রসুল খান (৪৫) নামের এক যুবকের পা কুপিয়ে পা...