আগৈলঝাড়া উপজেলায় স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ স্বামী গ্রেপ্তার

অবশ্যই পরুন

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলায় এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে, যাকে হত্যা করা হয়েছে বলে পরিবারের অভিযোগ।

এ ঘটনায় ওই নারীর স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িকে গ্রেপ্তার করেছে করেছে পুলিশ।

আগৈলঝাড়া থানার ওসি আফজাল জানান, উপজেলার রত্নপুর গ্রাম থেকে মঙ্গলবার ভোরে মুক্তি রানী বৈদ্যর (১৮) লাশ তারা উদ্ধার করেন।

গ্রেপ্তাররা হলেন- মুক্তির স্বামী মিঠুন বৈদ্য, শ্বশুর খোকন বৈদ্য ও শ্বাশুড়ি রিনা সমাদ্দার।

ওসি বলেন, “মুক্তির সঙ্গে মিঠুনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ১০ মাস আগে তাদের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। এরপর থেকে বিভিন্ন কারণে তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ চলছিল।”

এ ঘটনায় মুক্তির বাবা সুমন বৈদ্য একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন এবং লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

মুক্তির বাবা বলেন, তার মেয়ের বিয়ে পারিবারিকভাবে হলেও তা মন থেকে মেনে নিতে পারেনি মিঠুনের পরিবার। বিভিন্ন সময় যৌতুক হিসেবে গহনা আর নগদ টাকা দাবি করে আসছছিল মেয়ে জামাই ও তার বাবা-মা। কিন্তু তিনি দিনমজুর হওয়ায় সেই দাবি পূরণ করতে পারেন নি। এ কারণে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চলতো তার মেয়ের উপর।

যৌতুকের টাকা না পেয়ে মুক্তিকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে লাশ ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখা হয় বলে অভিযোগ ‍সুমনের।

সম্পর্কিত সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বরিশালে গণধর্ষণ, প্রধান আসামি সাকিব গাজীপুরে গ্রেপ্তার

বরিশাল নগরীতে তরুণীকে ধর্ষণ ও আত্মহত্যায় প্ররোচনার প্রধান আসামি মো. সাকিবকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব-৮)। গতকাল...