স্বাগত বাংলা ওয়ার্ল্ডওয়াইডে ২ বাংলার যোগ আরও নিবিড় হোক: সালমা ফৈয়াজ

অবশ্যই পরুন

বিবাহ সূত্রে বাং‌লাদেশের এক অভিজাত পরিবারের সদস্যা তিনি। বরিশালের সন্তান শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হকের নাতি এ কে ফাইয়াজুল হক রাজুর সহধর্মিনী হয়েও সেই পরিচয়ে তিনি নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখেননি। এগিয়ে এসেছেন সমাজের অপেক্ষাকৃত দুর্বল মহিলাদের জন্য। সেইসঙ্গে প্রকাশ ঘটিয়েছেন নিজের শিল্পকর্মেরও। তিনি সালমা ফৈয়াজ। ঢাকার বাসিন্দা হলেও, সালমার শিকড় রয়ে গিয়েছে এপার বাংলার লালমাটির বীরভূমে। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের শান্তিনিকেতন থেকে কিছুটা দূরের রাজগ্রামে তাঁদের পৈতৃক ভিটে। কলকাতার কলুটোলাতেও রয়েছে বসত ভিটে। কথা প্রসঙ্গে সালমা জানালেন, তাঁর আত্মীয়-পরিজনের অধিকাংশই ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছেন এপার বাংলার বিভিন্ন জেলায়। কাজেই দুই বাংলার মধ্যে আত্মিক-টান তিনি সবসময়ই অনুভব করেন। বললেন সালমা। সমাজের দুঃস্থ এবং দুর্বল মহিলাদের জন্য বিভিন্ন সামাজিক প্রকল্পে বরাবর এগিয়ে এসেছেন তিনি। কাজ করেছেন তাঁদের পাশে থেকে। ভরসা জুগিয়েছেন। এর পাশাপাশি তাঁর এক কর্ম ইতিমধ্যেই দেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও পরিচিতি পেয়েছে। তা হল আচার। আচারের বাহারে সালমার হাতের জাদু তাঁকে আলাদা পরিচিতি দিয়েছে। দিনভর ব্যস্ত সালমা ফৈয়াজের অবসর কাটে ছবি এঁকে। নিজের মনের কথা উঠে আসে তাঁর ছবির ক্যানভ্যাসে। বাংলা ওয়ার্ল্ডওয়াইডের সঙ্গে যুক্ত হয়ে আপ্লুত এবং আবেগার্ত সালমার একটাই প্রতিক্রিয়া- সারা বিশ্বের বাংলা ভাষাভাষী মানুষের কথা বলুক বাংলা ওয়ার্ল্ডওয়াইড। একে মাধ্যম করে দুই বাংলার যোগ আরও নিবিড় হোক। ভাব-ভাবনা-সংস্কৃতির আদান প্রদান ঘটুক বাংলা ওয়ার্ল্ডওয়াইডকে মাধ্যম করে।

সম্পর্কিত সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

ডাসারে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু

মাদারীপুরের ডাসার উপজেলার কাজীবাকাই দক্ষিণ মাইজপাড়া পানিতে পড়ে দুই চাচাতো বোনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১ টার দিকে উপজেলার...