৭৫০ হেক্টর জমির সবজি নিয়ে বিপাকে চাষিরা

অবশ্যই পরুন

করোনাভাইরাসের কারণে সারাদেশে লকডাউন থাকায় কেউ বাইরে বের হচ্ছেন না। এমতাবস্থায় বেশ বিপাকে পড়েছেন ঝালকাঠি জেলার প্রান্তিক ও ক্ষুদ্র চাষিরা। সারাদেশে যানবাহন বন্ধ ও ক্রেতা না থাকায় বিক্রি করতে পারছেন না সবজি। ফলে বড় ধরনের লোকসান হচ্ছে চাষিদের।

ঝালকাঠির বাজারগুলোতে দেখা যায়, চাষিরা বাজারে প্রচুর টমেটো, বেগুন, শিম, বরবটি, বাঁধাকপি, ঢেঁড়স, লাউ, মিষ্টি কুমড়া, চিচিঙ্গা, ঝিঙে, করলা ও শসা নিয়ে এসেছেন। কিন্তু পরিবহন সংকটের কারণে বাজারে পাইকারি ক্রেতা নেই। ফলে চাষিরা কম দামে বিক্রি করে বাড়ি যাচ্ছেন।

জেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ঝালকাঠি জেলার প্রত্যন্ত এলাকায় খরিপ-১ মৌসুমে ৭৫০ হেক্টর জমিতে সবজির আবাদ হয়েছে।

স্থানীয় কৃষক মো. হারুন বলেন, ‘ক্ষেতের টমেটো পেকে লাল হয়ে গেছে। কিন্তু তোলার সাহস পাচ্ছি না। যদিও কিছু তুলেছি। তবে বাজারে তেমন ক্রেতা না পাওয়ায় পানির দরে বিক্রি করতে হয়েছে।’

কৃষক আলী আহমদ বলেন, ‘গত কয়েক দিনে বাজারে সবজির দাম যেভাবে পড়ে গেছে। তাতে লাভ তো দূরের কথা, মনে হয় পুঁজিও উঠাতে পারবো না। এভাবে চলতে থাকলে আমাদের লোকসান গুনতে হবে।’

বাজারের পাইকাররা বলেন, ‘করোনার কারণে কোনো যানবাহন চলছে না। যার কারণে মাল ঢাকায় পাঠাতে পারি না। ফলে কেউ মালও কিনছি না।’

জেলার উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. শাহজালাল বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতে সবজির দাম কমে গেছে। পরিস্থিতি ঠিক হলে দাম স্বাভাবিক হবে।’

সম্পর্কিত সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বরিশালে গণধর্ষণ, প্রধান আসামি সাকিব গাজীপুরে গ্রেপ্তার

বরিশাল নগরীতে তরুণীকে ধর্ষণ ও আত্মহত্যায় প্ররোচনার প্রধান আসামি মো. সাকিবকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব-৮)। গতকাল...