শিক্ষকের সঙ্গে আপত্তিকর ছবি তুলে গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ

অবশ্যই পরুন

ঝালকাঠির রাজাপুরে গৃহশিক্ষকের সঙ্গে আপত্তিকর ছবি তুলে এক গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।
সোমবার রাতে উপজেলার গালুয়া ইউপির পুলিয়াখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করেছে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছেন।

অভিযুক্তরা হলো, পুটিয়াখালী গ্রামের আব্দুস সত্তার মুন্সি ছেলে রিসন মুন্সি ও একই এলাকার ফারুক মোল্লার ছেলে রায়হান মোল্লা। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রাতেই অভিযুক্ত রায়হান মোল্লার বাবা ফারুক মোল্লাকে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

ভুক্তভোগীর স্বামী জানান, সোমবার রাত ৮টার দিকে তার ছোট ছেলেকে পড়াতে আসেন গৃহশিক্ষক ইলিয়াস হোসেন। এ সময় স্থানীয় রিসন মুন্সি ও রায়হান মোল্লাসহ কয়েক যুবক বাড়িতে এসে গৃহশিক্ষকের সঙ্গে তার স্ত্রীর অনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে, এমন অভিযোগ এনে গৃহশিক্ষককে অকথ্যভাষায় গালাগাল করে।

একপর্যায়ে তার স্ত্রী ও গৃহশিক্ষককে একসঙ্গে করে বেশকিছু আপত্তিকর ছবি তোলে রিসন ও রায়হান। পরে ওই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে রিসন ও রায়হান তার স্ত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এরপর ধর্ষণকারীরা চলে গেলে রাত ১টার দিকে তার স্ত্রী ফোনে বিষয়টি তাকে জানায়। পরে সে ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিলে রাজাপুর থানা পুলিশ রাত ৩টার দিকে তার স্ত্রী ও গৃহশিক্ষককে উদ্ধার করে।

গৃহবধূর স্বামী বলেন, গত দেড়মাস বাড়িতে থাকার পর সোমবার সকালে কর্মস্থল খুলনায় চলে যাই। এই সুযোগে স্থানীয় বখাটে রিসন ও রায়হান তাদের দলবল নিয়ে প্রথমে ঘরে লুটপাট চালায় এবং পরে আমার স্ত্রীকে ধর্ষণ করে। আমরা এ বিষয়ে আইনের আশ্রয় নেব।

রাজাপুর থানার ওসি মো. জাহিদ হোসেন বলেন, গৃহবধূকে উদ্ধার করা হয়েছে। তার স্বামী খুলনা থেকে রাজাপুরের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সম্পর্কিত সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বরিশালে গণধর্ষণ, প্রধান আসামি সাকিব গাজীপুরে গ্রেপ্তার

বরিশাল নগরীতে তরুণীকে ধর্ষণ ও আত্মহত্যায় প্ররোচনার প্রধান আসামি মো. সাকিবকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব-৮)। গতকাল...